উৎসবের পরে- পরিচালক ঋতুপর্ণ ঘোষের প্রতি শ্রদ্ধা

উৎসবের পরে- পরিচালক ঋতুপর্ণ ঘোষের প্রতি শ্রদ্ধা

সমাপ্তি রায় :

মল্লিক বাড়িতে বছর ছয়েক পর বিদেশ থেকে উৎপল এসেছে তার পরিবার নিয়ে, পুজো বাড়িটা এবার জমজমাট।কিন্তু পুজো মানে কি শুধুই গান বাজনা হৈহৈ?এই মল্লিক বাড়ির অন্দরে লুকিয়ে আছে অনেক গোপন তথ্য, ইতিহাস।সময়ের নিয়মেই যা চাপা পড়েছিল।আজ হঠাৎ করেই বেরিয়ে পড়ে অন্দরমহলের সেই নিষিদ্ধ প্রেম অথবা রাজনৈতিক পালাবদলের ইতিহাস।

স্বাধীনতা থেকে নকশাল আন্দোলন কিংবা আজকের অস্থির সময়, একই ছাদের নিচে সহাবস্থান
এই নিয়েই তৈরি আটপর্বের ওয়েব সিরিজ ‘উৎসবের পরে‘।ছবিটির কাহিনী ও পরিচালনায় অভিনন্দন দত্ত।অভিনয়ে কৌশিক সেন, ঋতব্রত মুখার্জ্জী, বিমল চক্রবর্তী, সেঁজুতি মুখার্জ্জী, ঐশ্বর্য সেন, অবন্তী দত্ত, শ্রেয়া ভট্টাচার্য্য, ঈশানি সেনগুপ্ত, সত্যম ভট্টাচার্য্য, জীবন সাহা, দেবযানী দত্ত, পারমিতা মুখার্জ্জী, তপতী মুন্সী, অর্পণ গড়াই, শিল্পি দাস, দোয়েল রায় নন্দী, সৌরভ ও অন্যান্যরা

প্রযোজনায় রোল ক্যামেরা অ্যকশন; সহ প্রযোজনায় ধাগা প্রোডাকশন; সঙ্গীত পরিচালনায় ময়ুখ মৈনাক; চিত্র পরিচালনায় মৃণ্ময় নন্দী। “নয়ের দশকের শেষ দিকে যে বাঙালী দর্শক মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিল হল থেকে, তাদেরই ঋতুপর্ণ দাঁড় করিয়েছিলেন নন্দনের বাইরের লম্বা লাইনে।নিটোল বাংলা ছবির এক ধারা তৈরী করেছিলেন।বনেদি বাড়ীর পুজোর গল্প নতুন কিছু নয়, এর আগেও বহু উপন্যাস বা ছবি হয়েছে পুজো বাড়ীর প্রেক্ষাপটে।

কলেজ জীবনে উৎসব ছবিটি দেখার পর ছ পাতার একটি গল্প লেখা হয়ে গেছিল।যেহেতু গল্প লেখার মূল ভাবনা ছিল ওই ছবিটি তাই সেই গল্পের রেশ ধরেই এই ওয়েব সিরিজ।বর্তমানে আমরা সকলেই ঘরবন্দী।কোথাও কোনোরকম হইচই নেই।

পুজোয় ঠাকুর দেখার আনন্দেও এবার ভাটা পড়বে।তাই আমরা এই ছবি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি” বলে জানালেন পরিচালক অভিনন্দন
গত ২২শে আগস্ট থেকে শুরু হয়েছে ছবির শ্যুটিং।বেলগাছিয়া রাজবাড়ীতে চলছে দৃশ্যায়ন।আগামি দুর্গোৎসবের বোধনেই মুক্তি পাবে ‘উৎসবের পরে’

News Desk

News Desk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *