নভেম্বরে ই-চালানের সংখ্যা ৫৮৯ লক্ষ থেকে বেড়ে ডিসেম্বরে হয়েছে ৬০৩ লক্ষ

নভেম্বরে ই-চালানের সংখ্যা ৫৮৯ লক্ষ থেকে বেড়ে ডিসেম্বরে হয়েছে ৬০৩ লক্ষ

জিএসটি ব্যবস্থার এক অভিনব পন্থা হল জিএসটি ই-চালান ব্যবস্থা। এই ব্যবস্থা চালু হওয়ার ফলে জিএসটি-তে আমূল পরিবর্তন এসেছে। করদাতাদের সুবিধার্থে অত্যন্ত সহজ ও সরল পদ্ধতিতে বকেয়া মেটানোর এই ব্যবস্থার তিন মাস পূর্ণ হয়েছে। এই তিন মাসে ই-চালান ব্যবস্থার মাধ্যমে ৩৭ হাজারের বেশি করদাতার ১,৬৮০ লক্ষের বেশি ইনভয়েস রেফারেন্স নম্বর বা আইআরএন তৈরি হয়েছে। উল্লেখ করা যেতে পারে, ই-চালান ব্যবস্থার উদ্ভাবন করেছে এনআইসি।  এই ব্যবস্থায় গত অক্টোবরে ৪৯৫ লক্ষ ই-চালান তৈরি হয়েছিল। নভেম্বরে ই-চালানের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ৫৯৮ লক্ষ এবং সদ্য সমাপ্ত ডিসেম্বরে সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬০৩ লক্ষ।  ই-চালান ব্যবস্থায় কর মেটানোর পদ্ধতি সহজ ও সরল হওয়ায় করদাতারা সমস্যা ছাড়াই বকেয়া মেটাতে পারছেন। অবশ্য, কিছু কিছু ক্ষেত্রে অতি স্বল্প বাধা-বিপত্তি দেখা দিয়েছে যে কারণে গ্রাহকদের ই-চালান নম্বর জমা পড়ার ক্ষেত্রে একাধিকবার চেষ্টা করতে হয়েছে। এই সমস্যা দূর করার জন্য এনআইসি-র পক্ষ থেকে হেল্পডেস্ক চালু করা হয়। সাধারণ করদাতারা মেল এবং টেলিফোন মারফৎ সমস্যার সুরাহা পেয়েছেন। এমনকি, এই হেল্পডেস্ক নম্বরে যোগাযোগ করে চালান জমা দেওয়ার ক্ষেত্রেও প্রয়োজনীয় পরামর্শ অথবা সংশোধন বা পরিমার্জনের সুবিধা নিয়েছেন করদাতারা। করদাতাদের সুবিধার্থে সরকার ২০২১-এর ১ জানুয়ারি থেকে বার্ষিক ১০০ কোটি টাকার কম লেনদেনের ক্ষেত্রেও  ইনভয়েস রেফারেন্স নম্বর পাওয়ার সুযোগ দিচ্ছে। এছাড়াও এনআইসি পোর্টালের মাধ্যমে বড় অঙ্কের করদাতারা, যাঁদের বার্ষিক লেনদেনের পরিমাণ ৫০০ কোটি টাকার বেশি, তাঁরাও এই ব্যবস্থার সুবিধা নিতে পারছেন।  ছোট করদাতাদের প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি বিবেচনায় রেখে এনআইসি ই-চালান ব্যবস্থা শুরু করার পাশাপাশি, ইনভয়েস রেফারেন্স নম্বর পাওয়ার ক্ষেত্রে অফলাইনেও একটি এক্সেল-ভিত্তিক পদ্ধতি চালু করেছে। এই ব্যবস্থায় ছোট করদাতারা অনলাইনের সুবিধা না নিয়েও বকেয়া কর মেটাতে পারবেন এবং নিজের সুবিধামতো তা জমা দিতে পারবেন। তবে, করদাতাদের বকেয়া কর সংক্রান্ত রিটার্ন দাখিল আপলোড করার ক্ষেত্রে অনলাইনে এই কর জমা দেওয়ার সময় একটি কিউআর কোড পাবেন। এই কিউআর কোডটি স্ক্যান করে রিটার্ন দাখিল করা যাবে এবং ই-চালান নম্বর স্বয়ংক্রিয়ভাবে তৈরি হবে।

News Desk

News Desk

প্রাসঙ্গিক বিষয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *