কোভিড জনিত অতিমারি পরিস্থিতিতে গঙ্গার জলে ভারী ধাতব দূষণের পরিমাণ উল্লেখযোগ্য ভাবে হ্রাস পেয়েছে বলে সমীক্ষায় প্রকাশ

কোভিড জনিত অতিমারি পরিস্থিতিতে গঙ্গার জলে ভারী ধাতব দূষণের পরিমাণ উল্লেখযোগ্য ভাবে হ্রাস পেয়েছে বলে সমীক্ষায় প্রকাশ

 কোভিড জনিত অতিমারি পরিস্থিতিতে বিভিন্ন কলকারখানা থেকে ভারী ধাতব পদার্থ নিষ্কাশন কম হওয়ায় গঙ্গার জলে ধাতব দূষণের পরিমাণ ব্যাপক হারে হ্রাস পেয়েছে। এক সমীক্ষায় প্রকাশ পেয়েছে যে, কোভিড জনিত পরিস্থিতি চলাকালীন কানপুরের ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজির একদল বিজ্ঞানী বড় বড় নদী গুলির জলে গবেষণা চালিয়ে দেখেছেন যে, কিভাবে নদীর জলে রসায়ন স্থিতিশীলতার ওপর নৃতত্ত্ব ক্রিয়া-কলাপ গুলি প্রভাব বিস্তার করেছে। ওই বিজ্ঞানীরা সারা দেশ জুড়ে লকডাউন চলাকালীন টানা ৫১ দিন ধরে গঙ্গা নদীর ভূ রাসায়নিক রেকর্ড বিশ্লেষণ করে দেখেছেন যে, লকডাউন পরিস্থিতির ফলে জলে ভারী ধাতুর ঘনত্ব সর্বনিম্ন ৫০ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। এ পাশাপাশি বিভিন্ন নালা থেকে গঙ্গায় নিষ্কাশিত নাইট্রেট এবং ফসফেটের মাত্রাও অনেকটাই কম ছিল। বিজ্ঞানীদের এই গবেষণাটির জন্য ইন্দো- ইউএস সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি ফোরাম যা ভারত সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সংশ্লিষ্ট বিভাগের অধীনে একটি দ্বিপাক্ষীয় সংস্থা হিসাবে গঠন করা হয়েছিল। তারা সম্প্রতি  পরিবেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পর্কিত একটি পত্র প্রকাশ করেছে। গঙ্গার জলে দ্রবীভূত ভারী ধাতু গুলির উচ্চ স্থিতিস্থাপকতা এই পত্রে প্রকাশ পেয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব এবং নদীর জলের গুণমানও জানা সম্ভব হয়েছে।

News Desk

News Desk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *