ওরাও ভোটে

ওরাও ভোটে

২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচন যে বেশ টানটান উত্তেজনার মধ্যে হতে চলেছে সে কথা বলাই বাহুল্য। নির্বাচন কমিশনের এবারের নজর বিশেষ করে নতুন ভোটার। তাদের সচেতনতা বৃদ্ধি এবং বুথ মুখী করা কমিশনের মূল লক্ষ্য। হিসাব অনুযায়ী ২০২১ এর বাংলার বিধানসভা নির্বাচনে ১৮বছর থেকে ১৯ বছরের নতুন ভোটারের সংখ্যা প্রায় ১৮ লক্ষ। তার সাথে নির্বাচন কমিশন এবার অ্যাপসেন্টি ভোটার অর্থাৎ ৮০ বছরের উর্ধ্বে মানুষ, বিশেষভাবে সক্ষম, এবং করোনা আক্রান্ত মানুষদের ভোট প্রদানের ক্ষেত্রে বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছেন। কিন্তু যারা করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি তাদের কি হবে ?
নির্বাচন কমিশন কিন্তু তাদের একটুও নিরাশ করেনি। যারা বর্তমানে করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে তারাও এবার বিধানসভা নির্বাচনে নিজেদের ভোট দিতে পারবেন। কমিশন সূত্রে খবর, ভোটের দায়িত্বে যারা রয়েছেন তারা করোনা হাসপাতাল এগিয়ে প্রত্যেকটি করোনা আক্রান্ত ভোটারের কাছে আবেদনপত্র দেবেন। এবং তা সম্পূর্ণ করোনা বিধি-নিষেধ মেনে। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট হাসপাতালের সুপার এর কাছ থেকে অনুমতি পত্র লাগবে। তারপর যে সমস্ত ভোটার নিজেদের ভোট দিতে চান তারা বেলেট পেপারে নির্দিষ্ট প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ভোট দিতে পারবেন।
কমিশনের এই পদক্ষেপের ফলে করোনা আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে বসে ভোট দিতে পারছেন তা নজিরবিহীন বলে মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল। কমিশন এর আগে জরুরী পরিষেবা সঙ্গে যারা যুক্ত তাদের জন্য ব্যালটে ভোট দেওয়ার ব্যবস্থার কথা ঘোষণা করেছে। এর ফলে সুস্পষ্ট ভাবে বোঝা যাচ্ছে কমিশন বিধানসভা নির্বাচনে এক নতুন নজির রাখতে চলেছেন।
সংবিধান অনুযায়ী যে সমস্ত আসামী সংশোধনাগারে বন্দী আছেন তারা ভোট দিতে পারেন না। কিন্তু যারা বিচারাধীন আসামী তাদের ভোট দেওয়ার ব্যাপারে কমিশনের কিছু চয়ন পদ্ধতি আছে, ভোটের আগে সংশোধনাগারের কর্তৃপক্ষের কাছে বিচারাধীন আসামির তালিকা চেয়ে পাঠানো হয় কমিশনের পক্ষ থেকে, সে ক্ষেত্রে এখনো পর্যন্ত সেই তালিকা অনুযায়ী কোনো আসামীই ভোট দিতে সক্ষম হননি, নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর।

News Desk

News Desk

প্রাসঙ্গিক বিষয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *