বিক্ষোভ কর্মীদের

প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হতেই শুরু হয়েছে দলীয় কর্মীদের বিক্ষোভ। আর সেই আঁচ এসে পড়েছে বিজেপির প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে। এই আবহে দিলীপ ঘোষ বা মুকুল রায়কে ভোটের ময়দানে নামাতে পারে বিজেপি। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে আসা অভিনেতা হিরণকে খড়গপুর সদরে প্রার্থী করেছে বিজেপি। যা নিয়ে দিলীপ অনুগামীরা বেজায় ক্ষুব্ধ বলে সূত্রের খবর। সূত্রের খবর এই পরিস্থিতিতে খড়গপুর সদর না হোক, বীরভূমের দুবরাজপুর থেকে প্রার্থী করা হতে পারেন দিলীপ ঘোষকে। প্রসঙ্গত, গত লোকসভা নির্বাচনে দুবরাজপুর কেন্দ্রে ১৪,০০০ ভোটে এগিয়ে ছিল বিজেপি।এদিকে, দিলীপ ঘোষ এর আগে দু’বার (একবার বিধানসভা এবং দ্বিতীয়বার লোকসভা) ভোটে দাঁড়িয়ে জিতলেও মুকুলের তেমন ইতিহাস নেই। সংগঠনে ‘তুখোড়’ হলেও ভোটে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে মুকুল রায়ের তেমন সাফল্য কোনওকালেই নেই। কিন্তু এবার মুকুলকে কৃষ্ণনগর দক্ষিণ থেকে প্রার্থী করে দিতে পারে বিজেপি। অন্তত মুকুলের ঘনিষ্ঠরা তেমনই বলছেন। উল্লেখ্য, ২০০১ সালে বিধানসভা ভোটে তৃণমূলের টিকিটে লড়েছিলেন মুকুল। কিন্তু তাতে সফল হননি তিনি৷সূত্রের খবর, দিলীপ ঘোষ দলের নির্দেশ মেনে প্রার্থী হতে আগ্রহী থাকলেও  মুকুল রায় প্রার্থী হতে রাজি নন বলে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে জানিয়েছেন। তবে দিলীপ-মুকুলকে প্রার্থী করার সিদ্ধান্ত এখনও চূড়ান্ত নয়। মঙ্গলবার রাতেই রাজ্যের শীর্ষ নেতাদের দিল্লিতে জরুরি তলব করেছেন অমিত শাহ। সেখানেই নির্ধারিত হবে পরবর্তী পথ। এবারের নির্বাচনের বৈতরণী পার করতে বঙ্গ বিজেপির হয়ে প্রচারে নেমেছে মোদী-শাহ-যোগীর মতো রাজনীতির সুপারস্টার মুখ। রাজ্য জুড়ে একের পর এক জায়গায় প্রচার চালাচ্ছেন রাজনাথ সিং থেকে মন্ত্রী স্মৃতি ইরানিও। কিন্তু তারপরেও প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পর কেন এত বিক্ষোভ তা জানতে উদগ্রীব হয়ে উঠেছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। বিজেপির প্রার্থী বাতিলের দাবিতে সোমবার ব্যাপক বিক্ষোভ দেখায় কর্মীরা। এরপর মঙ্গলবারেও সেই একই ছবি। পার্টি অফিসের সামনে প্রার্থী বদলের দাবিতে তুমুল বিক্ষোভ দেখায় দলীয় কর্মীরা। দক্ষিণ ২৪ পরগণার একাধিক বিধানসভা কেন্দ্র থেকে আগত কর্মীরা হেস্টিংসের পার্টি অফিসের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ দেখান। ফলে ভোটের মুখে যথেষ্ট অস্বস্তিতে বঙ্গ বিজেপি।বিজেপির এখন অবধি চার দফার প্রার্থী তালিকা ঘোষিত হয়েছে। আরও ১৭১ টি আসনের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করতে হবে। ফলে এখনই যদি এমন বিক্ষোভ দেখা যায়, পরে ভোটের মুখে হাল কেমন হবে, তা যথেষ্ট ভাবাচ্ছে বিজেপি নেতৃত্বকে।

News Desk

News Desk

প্রাসঙ্গিক বিষয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *