আরও বাহিনী ?

আরও বাহিনী ?

প্রথম দফার নির্বাচনে কমিশনের নজরে জঙ্গলমহল। ইতিমধ্যেই রাজ্যে প্রথম দফার নির্বাচনের জন্য ৭২৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী চলে এসেছে। কমিশন সূত্রে খবর তাতেও সন্তুষ্ট হতে পারছেন না নির্বাচন কমিশন নিযুক্ত এ রাজ্যের দুই পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে এবং অজয় নায়েক। আর তার জেরেই প্রথম দফার নির্বাচনের জন্য আরও বাহিনী চাইছেন এই দুই পর্যবেক্ষক। কমিশন সূত্রে খবর মোট ৯৫৬ কোম্পানি দিয়ে প্রথম দফার নির্বাচনে করাতে চায় এই দুই পর্যবেক্ষক। এই বিষয় নিয়ে ইতিমধ্যেই কমিশনের সঙ্গে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের আলাপ-আলোচনা শুরু হয়েছে বলেও কমিশন সূত্রে খবর।প্রথম দফার নির্বাচনে সব বুথকেই সংবেদনশীল বুথ হিসেবে চিহ্নিত করেছে কমিশন। শুধু তাই নয় প্রত্যেকটি বুথেই থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনী। প্রথম দফায় পাঁচটি জেলায় মোট ১০২৮৮ টি বুথে ভোট গ্রহণ নেওয়া হবে। জঙ্গলমহলের প্রত্যেকটি বুথেই ৮ জন করে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে। অন্তত এমনটাই পরিকল্পনা নির্বাচন কমিশনের। প্রথম দফার নির্বাচনে যতসংখ্যক বুথ আছে তার মধ্যে এক তৃতীয়াংশ জঙ্গলমহলের বুথ অন্তত এমনটাই কমিশন সূত্রে খবর।অন্যদিকে মহকুমা শাসকদের সঙ্গেও যেহেতু এবার কেন্দ্রীয় বাহিনী রাখা থাকবে ফলে প্রত্যেকটি বুথেই নির্বিঘ্নে ভোট পরিচালনা করতে গেলে আরও কেন্দ্রীয় বাহিনীর প্রয়োজন রয়েছে বলেই মনে করছেন এই দুই পর্যবেক্ষক। না হলে নির্বিঘ্নে ভোট করা কার্যত কঠিন হয়ে দাঁড়াতে পারে বলেই আশঙ্কা।অন্যদিকে আগামী সোমবারই রাজ্যে আসতে চলেছেন ডেপুটি ইলেকশন কমিশনার সুদীপ জৈন। মূলত আগামী মঙ্গল ও বুধবার রাজ্যে আসার কথা রয়েছে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চের। মূলত মঙ্গলবার এবং বুধবার উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গ জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারদের সঙ্গে বৈঠক করতে পারে কমিশনের ফুল বেঞ্চ। অন্যদিকে আগামী সোমবারই রাজ্যে চলে আসছেন ডেপুটি ইলেকশন কমিশনার সুদীপ জৈন বলেই কমিশন সূত্রে খবর।এক্ষেত্রে নন্দীগ্রাম পরবর্তী পরিস্থিতি সহ একাধিক বিষয় নিয়ে আলোচনার সম্ভবনা রয়েছে বলেই কমিশন সূত্রে খবর। যদিও এখনও পর্যন্ত চূড়ান্ত সূচি কমিশনের ফুল বেঞ্চের হয়নি বলেই কমিশনের তরফ এ জানা গিয়েছে।

News Desk

News Desk

প্রাসঙ্গিক বিষয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *