নন্দীগ্রামে বিশেষ নজর কমিশনের

নন্দীগ্রামে বিশেষ নজর কমিশনের

প্রথম দফার নির্বাচনের থেকে শিক্ষা নিয়ে দ্বিতীয় দফা নির্বাচনে আরো কঠোর হতে চলেছে নির্বাচন কমিশন। যেখানে দ্বিতীয় দফার নির্বাচনের অন্যতম বিধানসভা কেন্দ্র হল নন্দীগ্রাম। যেখানে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা প্রার্থী হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী।
সেই নন্দীগ্রাম কে নিয়ে একটু অন্যরকম চিন্তাভাবনা নির্বাচন কমিশনের। নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে অক্সিলারী বুথ মিলিয়ে এবছরের বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রামে মোট বুথের সংখ্যা ৩৫৫, ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে এই সংখ্যাটি ছিল ২১৬। নিরাপত্তাকে সুনির্দিষ্ট করতে শুধুমাত্র নন্দীগ্রামের জন্য রাখা হয়েছে ২২ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। তার সাথে ২২ টি কিউ আর টি থাকছে শুধুমাত্র নন্দীগ্রামের জন্য।
কমিশন সূত্রে আরও খবর নন্দীগ্রামের ওপর নজরদারি চালানোর জন্য রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন কমিশনে আলাদা করে টিম তৈরি করা হয়েছে। যারা সম্পূর্ণ নন্দীগ্রামের ওপর ওয়েব কাস্টিং সহ বিভিন্ন জিনিসের ওপর নজরদারি চালাবেন। সেইসঙ্গে সতর্ক করা হয়েছে সেখানকার প্রশাসন কেও।
কমিশন সূত্রে খবর, নন্দীগ্রামের ৭৫% বুথে ওয়েব কাস্টিং করা হবে, প্রত্যেক বুথের জন্য থাকবে একজন করে মাইক্রো অবজারভার, প্রত্যেক সেক্টর অফিসের জন্য থাকবে ৮টি করে স্ট্যাটিক স্যারভায়োলেন্স টিম। যেহেতু নন্দীগ্রামে কিছুটা হলেও নেটওয়ার্কের সমস্যা রয়েছে তাই নির্বাচন কমিশন প্রত্যেকটি মোবাইল অপারেটরদের কাছে চিঠি দিয়ে জানিয়েছে যে আগামী ৩১ শে মার্চ সকাল ছয়টা থেকে ২এপ্রিল সন্ধ্যে সাতটা পর্যন্ত কোন রকম ভাবেই যাতে নেটওয়ার্কের কোন সমস্যা না হয়। রাজ্য পুলিশ কোনো রকম কারণ ছাড়াই যেখানে সেখানে যেতে পারবে, তাদের যাতায়াতে কোনো বাধ্যবাধকতা থাকবে না । নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর।
উল্লেখ্য দ্বিতীয় দফা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা প্রার্থীর সংখ্যা ১৭১, তারমধ্যে ১৫২ জন পুরুষ এবং ১৯ জন মহিলা। দ্বিতীয় দফায় মোট পোলিং স্টেশন ১০৬২০। মোট ভোটারের সংখ্যা ৭৬০৭৬৬৭।
নির্বাচন কমিশনের এত কঠোর ব্যবস্থার মধ্যে হয়তো এই প্রথম নির্বাচন হতে চলেছে নন্দীগ্রামে।

News Desk

News Desk

প্রাসঙ্গিক বিষয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *